Alliance for Bangladesh Worker Safety

বাংলা

ঢাকায় দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ভবন এবং অগ্নি নিরাপত্তা প্রদর্শনীর আশাতীত সফলতা অর্জন

.

expo2

10,000 অংশগ্রহনকারী এবং ৫০ জন প্রদর্শনকারী জাতির ইতিহাসের এই বৃহত্তম প্রদর্শনীতে অংশগ্রহন করেন ।

ঢাকা, বাংলাদেশ – দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ভবন এবং অগ্নি নিরাপত্তা বাণিজ্য প্রদর্শনী - বাংলাদেশের ইতিহাসের সর্ববৃহৎ আন্তর্জাতিক ভবন এবং অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ক এই প্রদর্শনীতে সমাবেশ ঘটেছিলো অগ্নি এবং নিরাপত্তা বিষয়ক সরঞ্জাম বিক্রতা, কারখানা প্রতিনিধি এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের- যা এ যাবতকালের বৃহত্তম সমাবেশ । এই প্রদর্শনীতে পোশাক শিল্প নেতৃবৃন্দ এবং নেতৃস্থানীয় আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা সরঞ্জাম বিক্রেতা এবং বিশেষজ্ঞগণ একত্রিত হয়েছিলে এবং বাংলাদেশের নিরাপত্তা বিষয়ক সর্বাধুনিক প্রযুক্তি, টুলস এবং বিশেষজ্ঞদের সাথে পরিচিত হতে পেরেছিলেন ।

তাজরিন ফ্যাশন লিমিটেড-এ অগ্নিকান্ডের দ্বিতীয় বার্ষিকী উপলক্ষে বিবৃতি

.

তাজরিন ফ্যাশন লিমিটেড-এ অগ্নিকান্ডের দ্বিতীয় বার্ষিকী উপলক্ষে বিবৃতি

দুই বছর আগের এই দিনে তাজরিন ফ্যশনের অগ্নিকান্ডে নিহত হন ১১২ জন শ্রমিক এবং আহত হন ২০০জনেরও বেশি শ্রমিক । বাংলাদেশ পোশাক শিল্পে যতগুলো দুর্ঘটনা ঘটেছে এটি তার মধ্যে অন্যতম একটি ভয়াবহ দুর্ঘটনা । এবং এই দুর্ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই পোশাক শিল্পে জরুরি সংস্কার অপরিহার্য হয়ে ওঠে । আজকে আমরা নিহত এবং আহতদের স্মরণ করছি এবং তাদের পরিবারদের জানাচ্ছি আমাদের আন্তরিক শ্রদ্ধা ।

পোশাক শিল্পের নিরাপত্তা প্রহরীদের জন্য নতুন অগ্নি নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ শুরু

.

পোশাক শিল্পের নিরাপত্তা প্রহরীদের জন্য নতুন অগ্নি নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ শুরু
নিরাপত্তা প্রহরী প্রশিক্ষণ, ভবন এবং অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ক প্রদর্শনী এবং শ্রমিক হেল্পলাইন সম্প্রসারণ যা শ্রমিক নিরাপত্তা উন্নয়নের সমন্বিত প্রচেষ্টার অংশবিশেষ ।

ঢাকা, বাংলাদেশ – অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি পোশাক শিল্প শ্রমিকদের জীবন রক্ষার্থে কারখানার নিরাপত্তা প্রহরীদের প্রশিক্ষণ প্রদানের একটি নতুন উদ্যোগের ঘোষণা প্রদান করছে। ন্যাশনাল ফায়ার প্রটেকশন অ্যাসোসিয়েশন (এনএফপিএ)-এর দিক নির্দেশনা অনুসারে গঠিত এই কোর্স জরুরি মুহুর্তে প্রহরীরা যেন কার্যকরি সাড়া প্রদানে সক্ষম হয় তার জন্য প্রহরীদের প্রস্তুত করবে।

Read the full release here (PDF)

অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি স্বতন্ত্রভাবে নিরাপত্তা প্রশিক্ষণের প্রভাব মূল্যায়নের জন্য টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়কে সম্পৃক্ত করেছে ।

.

অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি স্বতন্ত্রভাবে নিরাপত্তা প্রশিক্ষণের প্রভাব মূল্যায়নের জন্য টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়কে সম্পৃক্ত করেছে ।

আজকে অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি ঘোষণা প্রদান করছে যে ইউনিভারসিটি অব্ টেক্সাস হেলথ সাইন্স সেন্টার অ্যাট হাউসটোন- এর সঙ্গে অ্যালায়েন্স এই মর্মে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে যে ইউনিভারসিটি অব্ টেক্সাস বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিকদের অ্যালায়েন্স কতৃক প্রদেয় প্রাথমিক অগ্নি নিরাপত্তা প্রশিক্ষণের প্রভাব মুল্যায়ন স্বতন্ত্রভাবে পরিচালনা করবে । এই প্রজেক্ট টিমের নেতৃত্ব দেবেন ডঃ হাসনাত আলমগীর,ইউনিভারসিটি অব্ টেক্সাস (ইউটি) স্কুল অব্ পাবলিক হেল্থ অ্যাট দি প্রোগ্রাম ইন ইনভাইরোনমেন্টাল এন্ড অকুপেশনাল হেল্থ সাইন্স- এর সহকারী অধ্যাপক । এই দলটি একটি বৈধ এবং নির্ভরযোগ্য ফলাফল অর্জনের জন্য একটি গবেষণা পরিচালনা করবে, রেনডম জরীপের মাধ্যমে উপাত্ত সংগ্রহ করবে এবং অ্যালায়েন্সের শ্রমিক প্রশিক্ষণের কার্যকারিতার ওপর বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশ করবে । যেহেতু পরবর্তী বছরগুলোতে অ্যালায়েন্স তার প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আরও বিস্তার ঘটাবে এবং অব্যাহত রাখবে সেহেতু এই প্রতিবেদন কোন কোন ক্ষেত্রে উন্নয়ন ঘটাতে হবে সেই ক্ষেত্রগুলো শনাক্ত করবে ।

প্রকাশিত সম্পূর্ণ বিবৃতিটি পড়ুন এখানে (পিডিএফ)

বাইপার্টিশান পলিসি সেন্টার (বিপিসি) কতৃক ইস্যূকৃত একটি যৌথ চিঠিতে অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি যে চিত্তাকর্ষক রেকর্ড অর্জন করেছে তার প্রশংসা করা হয়েছে ।

.

বাইপার্টিশান পলিসি সেন্টার (বিপিসি) কতৃক ইস্যূকৃত একটি যৌথ চিঠিতে অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি যে চিত্তাকর্ষক রেকর্ড অর্জন করেছে তার প্রশংসা করা হয়েছে ।

শ্রমিকদের রক্ষা, প্রশিক্ষণ এবং ক্ষতিপূরণ প্রদানের জন্য অ্যালায়েন্স প্রশংসিত; অগ্রগতি অব্যাহত রাখার জন্য সুপারিশ করা হয়েছে ।

ওয়াশিংটন ডি.সি (অক্টোবর, ২০১৪)- অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি (অ্যালায়েন্স) শ্রমিকদের রক্ষার্থে এবং পোশাক শিল্পের নিরাপত্তা উন্নয়নে ব্যাপক অগ্রগতি সাধন করেছে, বিপিসি কতৃক ইস্যুকৃত একটি চিঠিতে সাবেক সিনেটর জর্জ মিশেল ( ডি-এমই), বাইপার্টিশান পলিসি সেন্টারের (বিপিসি) সহ-প্রতিষ্ঠাতা, এবং ওলিম্পিয়া স্নোয়ে (আর-এমই) বিপিসি সিনিয়র ফেলো, অ্যালায়েন্সের স্বতন্ত্র সভাপতি অ্যালেন টশার কে এই কথা জানিয়েছেন ।

প্রকাশিত সম্পূর্ণটি পড়ুন এখানে (পিডিএফ)

স্বতন্ত্র পর্যালোচনায় অ্যালায়েন্সের গুরুত্বপর্ণ অগ্রগতি অর্জনের ইঙ্গিত

.

ওয়াশিংটন ডি.সি – আজকের একটি ফোরামে অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি-এর প্রথম এক বছরের অগ্রগতি পর্যালোচনায়, বাইপারর্টিশান পলিসি সেন্টারের সহ প্রতিষ্ঠাতা জর্জ মিশেল এবং সিনিয়র ফেলো অলিম্পিয়া স্নোয়ে পর্যালোচনার ফলাফল ঘোষণায় জানিয়েছেন যে অ্যালায়েন্স বাংলাদেশ পোশাক শিল্পের নিরাপত্তা উন্নয়নে "ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রশংসনীয় অগ্রগতি সাধন করেছে" । সাবেক সিনেটর মিশেল এবং স্নোয়ে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত ইউ.এস মুহাম্মদ জিয়াউদ্দিন, অ্যালায়েন্স সভাপতি অ্যালেন টশার, গুরুত্বপূর্ণ ইউ.এস অফিসিয়ালবৃন্দ, বাংলাদেশ শ্রমিক নেতৃবৃন্দ এবং গুরুত্বপূর্ণ স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে একটি স্বতন্ত্র মূল্যায়নে অ্যালায়েন্সের এই অগ্রগতি দেখতে পান ।

প্রকাশিত সম্পূর্ণটি পড়ুন এখানে

বাংলাদেশ পোশাক শিল্পের নিরাপত্তা জোরদারের গুরুত্ব উপলব্ধির স্মারকলিপিতে অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি এবং এনএফপিএ-এর স্বাক্ষর প্রদান

.

কর্মচারীদের নিরাপত্তা রক্ষা এবং অনিরাপদ কর্মপরিবেশের কারণে যে সমস্ত মর্মান্তিক দুর্ঘটনাগুলো ঘটে থাকে তা প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে এক যৌথ উদ্যোগ ।

ওয়াশিংটন, ডি.সি – অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি আজকে ন্যাশনাল ফায়ার প্রটেকশন অ্যাসোসিয়েশন (এনএফপিএ) এর সঙ্গে অংশিদ্বারিত্বের একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা প্রদান করছে, এনএফপিএ আন্তর্জাতিক অগ্নি নিরাপত্তাবিষয়ক একটি নেতৃস্থানীয় সংস্থা । দুই সংস্থা কতৃক স্বাক্ষরিত এই মেমোরেন্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং আজকে বিধিবদ্ধ হতে যাচ্ছে, এই যৌথ সহযোগিতার কারণে তথ্য,দিক নির্দেশনা এবং ট্রেইনিং রিসোর্সে প্রবেশাধিকার সহ অ্যালায়েন্স সদস্য, কারখানা,শ্রমিক এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের ক্ষমতায়ন করবে যা বাংলাদেশ তৈরি পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের স্বাস্থ্য এবং নিরাপত্তা বিধানে সহায়ক হয়ে উঠবে ।

photo3

photo2

ওয়াশিংটন ডি.সি – অ্যালায়েন্স স্বতন্ত্র সভাপতি অ্যালেন টশার এবং এন এফপিএ প্রেসিডেন্ট জেমস টি. পাওলে বাংলাদেশ পোশাক কারখানাগুলোর নিরাপত্তা জোরদারের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশিদারিত্বে স্বাক্ষর করছেন ।

প্রকাশিত সম্পূর্ণটি পড়ুন এখানে

অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটির বার্ষিক প্রতিবেদন

.

অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটির প্রথম বছরের পদক্ষেপ হিসেবে আমরা সরেজমিনে কিছু কিছু অগ্রগতির রূপরেখা নির্ধারণ করেছি এটা নিশ্চিত করতে যে বাংলাদেশের কোনো শ্রমিকদের যেনো জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জীবিকা অর্জন করতে না হয় ।

প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আগুনের বিরুদ্ধে লড়াই (ভিডিও)

.

মা্ত্র এক বছরে, অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি বাংলাদেশ তৈরি পোশাক শিল্পে ভবন,অগ্নি এবং বৈদ্যুতিক নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ব্যাপক অগ্রগতি সাধন করেছে । সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এটা বলা যায় যে যদি কারখানার ব্যবস্থাপনা কতৃপক্ষ এবং শ্রমিকরা এক সাথে কাজ না করে এবং অগ্নি নিরাপত্তা প্রতিরোধের বিষয়টি যদি গুরুত্বের সঙ্গে না নেন তাহলে প্রানহানির সম্ভাবনা থেকেই যায়, । অ্যালায়েন্স বর্তমানে ৬০০টি কারখানায় এক মিলিওনেরও বেশি শ্রমিকদের সাথে কাজ করছে, বিশেষ করে অগ্নি নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ বিষয়ে,যা মূলত পাঁছ বছরের ফ্যাক্টরি রেমিডিয়েশন পরিকল্পনার প্রারম্ভ মাত্র । এটি শুরু হয়েছে অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ক শ্রমিকদের মৌলিক জ্ঞান যাচাইয়ের লক্ষ্যে পরিচালিত জরিপের মধ্যে দিয়ে, এরপর অনুষ্ঠিত হয়েছে “ট্রেইন-দি-ট্রেইনার” সেশন এবং ইন-ফ্যাক্টরি ট্রেইনিং । অ্যালায়েন্স ইতিমধ্যেই এটার ফল পেতে শুরু করেছে ।

অগ্নি নিরাপত্তা একটি যৌথ প্রচেষ্টা, এবং প্রত্যেকেই যখন একসাথে কাজ করবে এবং নিজেদের সুরক্ষিত রাখবে তখন বাংলাদেশে শ্রমিকদের নিরাপত্তা সহজেই অর্জনযোগ্য হয়ে উঠবে ।

alliance-video

অ্যালায়েন্স সম্পর্কে বারংবার করা প্রশ্ন

বিস্তারিত এফএকিউ –এ দেখুন অ্যালায়েন্স সম্পর্কে বারংবার করা প্রশ্ন এবং সেগুলোর উত্তর

দ্রুত যোগাযোগ

অনুগ্রহপূর্বক সাধারণ এবং গণমাধ্যম ঊভয় অনুসন্ধানের জন্য এখানে ক্লিক করুন ।