Alliance for Bangladesh Worker Safety

বাংলা

৩০০ টিরও বেশি অ্যালায়েন্স কারখানা তাদের সংশোধনী কর্ম পরিকল্পনায় উল্লেখিত সমস্ত মেরামত কাজ সম্পন্ন করেছে

.

সংস্কার কাজে তাৎপর্যপূর্ণ অগ্রগতি নিয়ে শেষ হলো ২০১৭ সাল

ঢাকা, বাংলাদেশ – অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি আজকে এই মর্মে ঘোষণা প্রদান করছে যে ডিসেম্বর ২০১৭ সালে আরও ৫৪টি অ্যালায়েন্স -অধিভুক্ত কারখানা তাদের সংশোধনী কর্ম পরিকল্পনায় (ক্যাপ) উল্লেখিত সমস্ত মেরামত কাজ সম্পন্ন করেছে, যার ফলে সংস্কার কাজ সম্পন্নকারী কারখানার মোট সংখ্যা দাঁড়ালো ৩০১টি ।

“অ্যালায়েন্সের কঠোর নিরাপত্তা মানদন্ড অর্জনে এই সমস্ত কারখানাগুলো যে কঠোর পরিশ্রম করেছে সেজন্য প্রত্যেকটি কারখানা প্রশংসার দাবিদার,” বলেছেন অ্যালায়েন্স এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর রাষ্ট্রদূত জিম মরিয়ার্টি । তাদের অগ্রগতি ২০১৮ সালের জন্য একটি বিশেষ পরিবেশ তৈরি করেছে, এবং বাংলাদেশ পোশাক শিল্পে নিরাপত্তা সংস্কৃতি তৈরির যে মিশন আমাদের রয়েছে তাকে আরও শক্তিশালি করেছে” ।

অ্যালায়েন্সের সমস্ত কারখানায়, ৮৭% প্রয়োজনীয় সংস্কার কাজ সম্পন্ন হয়েছে । এছাড়াও ডিসেম্বরে সংস্কার কাজে সন্তোষজনক অগ্রগতি প্রদর্শনে ব্যর্থ হওয়ার কারণে কোনো কারখানার সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক চ্ছিন্ন করা হয়নি, এবং এ দ্বারা এটাই প্রমানিত হয় যে শ্রমিকদের জন্য একটি নিরাপদ কর্মপরিবেশ তৈরিতে অ্যালায়েন্স কারখানাগুলোর একটি সমন্বিত প্রচেষ্টা রয়েছে । এ যাবত পর্যন্ত স্থগিত কারখানার সংখ্যা হলো ১৬৪ ।

অ্যালায়েন্সের প্রতিটি কারখানার বর্তমান স্ট্যাটাস পাওয়া যাবে আমাদের ওয়েবসাইট-এ ।

অ্যালায়েন্স সম্পর্কে বারংবার করা প্রশ্ন

বিস্তারিত এফএকিউ –এ দেখুন অ্যালায়েন্স সম্পর্কে বারংবার করা প্রশ্ন এবং সেগুলোর উত্তর

দ্রুত যোগাযোগ

অনুগ্রহপূর্বক সাধারণ এবং গণমাধ্যম ঊভয় অনুসন্ধানের জন্য এখানে ক্লিক করুন ।